১০+ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ নিয়ে কবিতা ২০২৩

সালটি ১৯৭১, ৭ মার্চ রোজ রবিবার। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রেসকোর্স ময়দান, বর্তমানে যা  সোহরাওয়ার্দী উদ্যান নামে পরিচিত, এক বিশাল জনসমাবেশে ১৮ মিনিটের দীর্ঘ একটি  ভাষণ প্রদান করেন। ভাষণটি ছিল পশ্চিম পাকিস্তানিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করার। বাঙালি জাতিকে মাথা উঠিয়ে তাদের বিরুদ্ধে সর্বস্ত্র দিয়ে যুদ্ধ করার আহ্বান জানান তিনি। তার আহবানে সাড়া দিয়ে পূর্ব পাকিস্তান এর জনগণ যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

এরপরের ঘটনা আমাদের সকলেরই জানা। দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধের পর আমরা আমাদের স্বাধীনতা পেয়েছি। ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর পাক হানাদার বাহিনীদের কাছ থেকে আমাদের স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছি। ঐতিহাসিক সেই ৭ মার্চের ভাষণ নিয়ে আজকে অনেকেই কবিতা খুজে বেড়াচ্ছে।

বাংলায় অনেক সুপ্ত প্রতিভার মানুষ অনেক সুন্দর সুন্দর ৭ মার্চ নিয়ে কবিতা লিখেছেন। তাদের লিখিত কবিতা থেকে বাছাই করে অনেক সুন্দর সুন্দর বিখ্যাত সব ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের কবিতা আজকের এই পোস্টটি শেয়ার করব। সুতরাং আপনি যদি ৭ মার্চ কবিতা খুঁজে থাকেন তাহলে আজকের পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ার অনুরোধ রইলো।

৭ মার্চ নিয়ে কবিতা

এখন আমি আপনার সাথে মোঃ শরিফুল ইসলাম এর লিখিত একটি ৭ মার্চ নিয়ে কবিতা শেয়ার করব। কবিতাটি আমাদের বাংলাদেশের এক তরুণ ভাই লিখেছেন। তার লেখা ৭ মার্চের বিখ্যাত কবিতাটি দেখুন।

কবিতা নংঃ ০১

৭ই মার্চ
– শরিফুল ইসলাম

১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ
রেসকোর্স ময়দানে
জনসমুদ্রে জাগিল জোয়ার
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।
লক্ষ লক্ষ উন্মত্ত অধীর ব্যাকুল
বিদ্রোহী শ্রোতার জন্য,
একটি কবিতা শুনে
অপেক্ষার উত্তেজনা হবে ধন্য।
দিগন্ত প্লাবিত একখন্ড
আকাশের নিচে,
মিশেছিল প্রানের প্রিয়
ধু ধু মাঠের সবুজে।
কপালে কব্জিতে লালসালু বেঁধে
ছুটে এসেছিল এই মাঠে,
মৃত্যু হাতের মুঠোয়, চোখে স্বপ্ন
জয় বাংলার শ্লোগান ঠোটে।
শত বছরের শত সংগ্রাম শেষে,
জনতার মঞ্চে দাঁড়ালেন এসে
দৃপ্ত পায়ে হেঁটে।
ঝলকে পলকে হৃদয়ে লাগিল দোলা,
তরীতে উঠিল পাল,
জনসমুদ্রে জাগিল জোয়ার
চোখেতে লোনা জল।
সোনালী সূর্যের সকল দুয়ার খুলি
কে রোধে সে বজ্রকন্ঠ বাণী,
গণসূর্যের মঞ্চ কাঁপিয়ে
শোনালেন তাঁর অমর-কবিতাখানি:
এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম,
‘এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম।

কবিতা নংঃ ০২

৭ মার্চের ভাষণ
মোহাম্মদ মাসুকুজ্জামান

রুদ্র প্রকটে বজ্র অনলে
উত্থিত তর্জনী লক্ষ্যে লাখো জনতা
দিলে ডাক মুক্তির সোপানে।
বক্ষে তোমার দেশমাতৃকা,
ছিল অনুরাগে।
পিতা তুমি আজও অমলিন
অবিনশ্বর।
ছিলে সেদিনও অধীশ্বর,
মুক্তিকামী চেতনার।

শব্দের বারুদে ক্রমাগত চয়নে-
দিয়েছিলে জ্বেলে তপ্ত চিঙ্গারে।
সপ্রতিভ সেই মুষ্টিবদ্ধ হাত
সাথে আঙুল একটি ছিল জাগরণ।
‘থাক সঙ্গবদ্ধ, হও এক; বলীয়ান’,
এ যেন তোমার অব্যক্ত কথন
তিমির বেদিতে।

কী মহান বাগ্মীতায়
কাগজে লেখা বিনে,
মননের কাগজে লিখিত বাণী-
বুনে ছিলে নেতা অবলীলায়।
শোষিত মানুষের হৃদয় ছুঁতে
৭ মার্চ একাত্তরে।

স্বাধীনতার অঙ্কুরিত সেই স্বপ্ন-
বেড়েছিল তোমার পুষ্টিতে,
মাত্র নয় মাসে, ১৬ ডিসেম্বরে।
তপ্ত গ্রীষ্ম পেরিয়ে শীতের আগমনে
স্বাধীন দেশের স্বাধীন বসন্ত-
পেয়েছিল আপামর, মানচিত্র মাঝে
অনেক ত্যাগ রক্তের দামে।

৭ মার্চের বিখ্যাত কবিতা

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ উপলক্ষে এই দিনটিকে ৭ মার্চ দিবস ঘোষণা করা হয়। আজকে ৭ ই মার্চ, তাই ইন্টারনেটে অনেকেই ৭ মার্চের বিখ্যাত কবিতা খুঁজে থাকেন। তাই আপনার জন্য বাছাই করে এখানে বেশ কয়েকটি কবিতা শেয়ার করেছি।

কবিতা নংঃ ০৩

চেতনাদীপ্ত সে ভাষণ
মো. হাসান ঈমাম

আমি পৌঁছে দেব পৃথিবীর প্রতি প্রান্তরে
রক্তভেজা প্রতিটি জনপদে
আন্দোলনে মনোবল সঞ্চারণে
বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের সে ভাষণ,
সহসা ভয়-সংকোচ ঝেরে ফেলে
হতাশার মাঝে শোষিত খুঁজে পাবে
শোষণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর যত প্রেষণ।

আমি মোহাচ্ছন্ন হয়ে অস্পৃশ্য শিহরণে
কান পেতে শুনবো সে ভাষণ।

আমি ছড়িয়ে দেব সে ভাষণ,
যে ভাষণ শোষকের দুর্গে তোলে কম্পন।
যে ভাষণে নিস্পৃহ হৃদয়ও করে শক্তি অন্বেষণ,
মুক্ত বাতাসে জাতির স্বপ্ন সাজাতে
ঘর থেকে মাতৃস্নেহের শৃঙ্খল ছিড়ে
নির্ভয়ে পথে-প্রান্তরে তোলে আলোড়ন,
আমি ছড়িয়ে দেব সারা বিশ্বে
দলিতদের মাঝে সে ভাষণ।

যে ভাষণে সুললিত কণ্ঠে মানুষের
অধিকার আদায়ে ঝরে বিনীত নিবেদন,
যে ভাষণ কভু বীরোচিত বাণীতে
দুর্বার দুর্দমনীয় স্বরে করে অধিকার অর্জন।

সবাই কান পেতে শোন বজ্রকণ্ঠের সে ভাষণ,
নিষ্প্রভ কর্ণও আজ ফিরে পাবে শিহরণ।

আমি কান পেতে শুনি সে ভাষণ-
যে ভাষণ শুনে এক মৃত্যুপুরে
শীর্ণকায় বাহুতে হয় পেশীশক্তির আগমন,
দেশের জন্য বীরদর্পে
যারা মৃত্যুকে করে আলিঙ্গন।

যে ভাষণ শুনে শূন্য হাতে
তপ্ত বুলেটের সম্মুখে
হাসিমুখে লাখো বক্ষ চিড়ে
বিশ্বের বুকে এক আলোকরশ্মির প্রজ্বলন,
বিপ্লবী জনতার হাতে বাংলাদেশের জাগরণ।

আমি দিন-রাত আত্মচেতনে উদ্বীপ্ত মননে
সদা কান পেতে থাকি শুনতে সে ভাষণ।

কবিতা নংঃ ০৪

৭ই মার্চ-অধ্যক্ষ এম. ইউনুস ফার্সি
বঙ্গবন্ধু এক জীবন্ত ইতিহাস
উত্তাল সংগ্রামের নাম,
বাংলার আকাশে বাতাসে ইথারে
ছড়িয়েছে তার বীরত্বের নিশাণ।

বঙ্গবন্ধু বাংলার স্বাধীনতার লাল সূর্য
এক সফল বিপ্লবের নাম,
তিনি বাংলার বীরত্বগাথা মহাকাৰ্য
এক মহাকবির নাম।

‘১৯৫২ থেকে ৭১’ বঙ্গবন্ধু ছিলেন তেজোদীপ্ত
রুদ্র-মূর্তি রবি সম
দূর করলেন যতো জঞ্জাল বৈষম্য
অন্যায় অন্যায্য অসম।

অবর্ণনীয় জেল জুলুম নির্যাতন
কখনো পরোয়া করেননি তিনি,
সমুদ্রসম মহান নেতার কাছে
বাঙালী জাতি তাই চিরঋণী।

৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠে উচ্চারিত
মন্ত্রমুগ্ধকর জ্বালাময়ী ভাষণ,
প্রবলবেগে ভেঙ্গে চুরমার হলো
পাক-শাসক গোষ্ঠীর অপ-শাসন।

বঙ্গবন্ধুর বজ্রকণ্ঠের পঙক্তিমালা
আলোক বিচ্ছুরিত শাণিত কথা,
অতুলনীয় অসাধারণ কাব্যিক ছন্দময়
যেন জীবন্ত কিংবদন্তীর রূপকল্প কথা।

বঙ্গবন্ধু নয় শুধু একজন
ম্যান্ডেলা-সুভাষবসু-মহাত্মা,
বঙ্গবন্ধু বীর বাঙ্গালীর হৃদয়

নিঃসৃত মহাকাব্য কবিতা ।
বিশ্ব দরবারে শ্রেষ্ঠ ভাষণ
বিবেচিত যে কয়টি,
সর্বকালের সেরা ভাষণ
অন্যতম এটি।

আব্রাহাম লিংকন, ম্যান্ডেলার
ভাষণ বিবেচিত হয় অনন্য অসাধারণ,
বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণও
অন্যতম জাতি ভুলবে না আমৃত্যু আমরণ।

৭ মার্চের কবিতা

কবিতা নংঃ ০৫

৭ই মার্চের ভাষণ কবিতা
স্বাধীনতার অধরা অমিয় সুধা
পেয়েছি ওগো বীর সেই ভাষণে
তৃষা মেটে লাগে ক্ষুধা
; পেতে স্বাধীনতার স্বপ্নিল ডানা
৭ই মার্চের ভাষণে জাগে জল্পনা।

ওহে বঙ্গবন্ধু তোমার সেই ভাষণ
লাল-সবুজের আবৃত্তে
বিশ্বমানচিত্রে আজ অঙ্কন
সেই পটভূমির অন্তরালে
তোমারি কৃর্তি মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড
বাঙালির ঐতিহাসিক কোলে।

৭ই মার্চের অমিয় সুধা পান
পেয়েছিল একাত্তরে যুদ্ধের ময়দানে বারংবার আশার সঞ্চারে
লক্ষ-লক্ষ জনতা দিয়েছিল প্রাণ
তাইতো ৭ই মার্চের ভাষণ চির অম্লান।

কবিতা নংঃ ০৬

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-তানিয়া আক্তার
মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি, দেখিনি মার্চের উত্তাল দিনগুলো
তবুও স্পষ্ট বেজে উঠে
তোমার বজ্রকন্ঠ,সেই সুর
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর।

আজও মনে হয় এই আমিই যেন
সু-স্পষ্ট সেদিন,

৭ ই মার্চের বুক কাঁপানো ভাষণ
নিজ কানে শুনেছি, দেখেছি নিজ চোখে।
প্রত্যেক নিভৃত ক্ষণে মওতা ছড়ায় যথারীতি
এখনো তোমার সংগ্রামী আহবানে জেগে উঠে প্রাণ
হে মহান নায়ক
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

এখনো,
গায়ের লোম,
উত্তেজিত হয়ে উঠে
চোখে জমে জল
যখন শুনি,
” এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।”

এখনো প্রাণের স্তরে স্তরে বাজে
তোমার সে সুর
বাংলার মানুষের প্রাণের গভীরে
তোমার স্মৃতিরা থাকে অবিনশ্বর জেগে
শান্তির ললিত বাণী নিয়ে
এসেছিলে তুমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

৭ মার্চের ভাষণ নিয়ে কবিতা

কবিতা নংঃ ০৭

সেই নদীর নাম রেসকোর্স ময়দান
ইতিহাস হয়েছে
মুক্তির ঢালে দিয়ে শান
লাখো মানুষের রেসকোর্স ময়দান,
তীব্র খরস্রোতে বইছে
ঢল নেমেছে ভেঙ্গে বান,
এ নদীর নাম রেসকোর্স ময়দান।

মুক্তিকামী মানুষের বহমানতা
এ নদীর নাব্য
এখানে আসবেন রাজনীতির অমর কবি

শোনাবেন মহাকাব্য।
দুয়ারে দুয়ারে
জোয়ারে জোয়ারে
উত্তাল ঢেউ গর্জে,
বিশ্ব ঐতিহ্যের সেই সাতই মার্চে,
এ নদীর কলতান
এ নদীর ঐকতান
প্রমত্তা নদী রেসকোর্স ময়দান।

উপস্থিত সকলে অধিষ্ঠিত আসনে
নিমগ্ন অমরত্বের ভাষণে,
ইতিহাস নাড়া দেয় সেই ধ্বনি
মানুষের ঢল অদ্ভুত ঐকতান
গড়ে মুক্তির দর্শন ,
কালজয়ী এক সিম্ফনি
রাজনীতির কবি উঁচিয়ে তর্জনী ।

জ্বলে উঠে শিখা লেলিহান
সেই রেসকোর্স ময়দান
এ নদী উত্তাল অবিরাম
এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম ।

রক্তের দামেই স্বাধীনতা কিনব
রক্ত যখন দিয়েছি আরো রক্ত দিব,
যার যা কিছু আছে অবশিষ্ট
ঝাঁপিয়ে পড় তাই দিয়ে হয়ে আদিষ্ট ।

অমরত্বের কবি বলেছেন
মহাকাব্যের বানী,
গুণমণি তিনি সকলেই জানি,
রাজনীতির কবি
তোমার মধুর বচনে
টেনে আনে যুগ থেকে যুগে সন্মুখ পানে
প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে স্বাধিকারের টানে ।

কবিতা নংঃ ০৮

একটি পতাকা পেলে হেলাল হাফিজ

কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে
আমি আর লিখবো না বেদনার
অঙ্কুরিত কষ্টের কবিতা
কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে
ভজন গায়িকা সেই সন্ন্যাসিনী সবিতা
মিস্ট্রেস ব্যর্থ চল্লিশে বসে বলবেন,
– ‘পেয়েছি, পেয়েছি’।

কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে
পাতা কুড়োনির মেয়ে শীতের সকালে
ওম নেবে জাতীয় সংগীত শুনে পাতার মর্মরে।
কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে
ভূমিহীন মনুমিয়া গাইবে তৃপ্তির গান
জ্যৈষ্ঠে-বোশেখে, বাঁচবে যুদ্ধের
শিশু সসন্মানে সাদা দুতে-ভাতে।
কথা ছিলো একটি পতাকা পেলে
আমাদের সব দুঃজমা দেবো যৌথ-খামারে,
সম্মিলিত বৈজ্ঞানিক চাষাবাদে
সমান সুখের ভাগ সকলেই নিয়ে
যাবো নিজের সংসারে।

সর্বশেষ কথা

আপনি যদি ৭ ই মার্চের কবিতা খুঁজে থাকেন তাহলে আশা করি ইতোমধ্যে তা এই পোস্টের মাধ্যমে খুঁজে পেয়েছেন। আমি আপনাদের জন্য সব সময় বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বাছাই করে সুন্দর সুন্দর কবিতা সংগ্রহ করার চেষ্টা করি। আশা করি আজকের প্রশ্ন শেয়ার করে দাও ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ নিয়ে কবিতাগুলো আপনার অনেক ভালো লেগেছে। সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

আরও দেখুনঃ

২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস স্ট্যাটাস ২০২৩

৭ই মার্চ কি দিবস ২০২৩ । ৭ মার্চ কি সরকারি ছুটি?

বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ লিখিত ২০২৩ – Pdf collect

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *